skip to Main Content
আপনি কি লোগো ডিজাইনের কথা ভাবছেন

আপনি কি লোগো ডিজাইনের কথা ভাবছেন

লোগো ডিজাইনের জন্য কোন অ্যাডোব প্রোগ্রামটি সেরা? অ্যাডোব ইলাস্ট্রেটর হল লোগো ডিজাইনের জন্য নির্মিত ইলাস্ট্রেটারের সর্বাধিক স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্যটি হ’ল এটি একটি ভেক্টর অঙ্কন সরঞ্জাম, যার অর্থ, আউটপুট ফাইলটি একটি ভেক্টর গ্রাফিক যা কোনও মানের হারানো ছাড়াই যেকোন ডিগ্রীতে পুনরায় আকার দিতে পারে ভেক্টর ফাই ছোট অথবা বড় করলে রেজুলেশন একই থাকে।

আপনি কি লোগো ডিজাইনের কথা ভাবছেন লোগো ছোট-বড় সব প্রতিষ্ঠানের একটি অপরিহার্য অংশ লোগো। লোগো প্রতিষ্ঠানের পরিচয় বহন করে। লোগো তৈরির অনেক উপায় আছে। যেমন অ্যাডোবি ফটোশপ ও ইলাস্ট্রেটর ব্যবহার করে, অথবা অনলাইনে বিভিন্ন লোগো মেকার ওয়েবসাইট থেকে ইত্যাদি। তবে কোন ব্যাবসার জন্য কি ধরনের লোগো তৈরি করবেন সেই ধারনা থাকাটা জরুরী. কোন মাধ্যমে অথবা কীভাবে লোগো ব্যবহৃত হবে, তার ওপর নির্ভর করে লোগো তৈরি করা উচিত। যদি ব্যক্তিগতভাবে ফেসবুক বা ইউটিউবের জন্য লোগোর প্রয়োজন হয়, তাহলে অনলাইনে বিনা মূল্যে লোগো তৈরি করে নেওয়া যায় অথবা একটা ভালো ডিজিনারকে দিয়ে তৈরি করে নিতে হবে। আর যদি বাণিজ্যিকভাবে ব্যানার, পোস্টার, বিলবোর্ড বা বড় কাজের জন্য লোগো লাগে, তবে সেজন্য আপনাকে ভেক্টর লোগো তৈরি করতে হবে অ্যাডোবি ইলাস্ট্রেটরে।

অনলাইনে বিনা মূল্যের লোগো মেকার প্রোগ্রাম দিয়ে লোগো তৈরি করলে লোগোর রেজল্যুশন ভালো হয় না এবং লোগাটি ইউনিক হয় না। ফলে লোগো বড় করলে তা ফেটে যায় এবং আপনার ব্যাবসার জন্য ফিট হয় না। তা ছাড়া অনলাইনে বিনা মূল্যে লোগো মোকার দিয়ে লোগো তৈরি করলে তা অন্যের লোগোর সঙ্গে মিলে যেতে পারে। অন্যদিকে অ্যাডোবি ইলাস্ট্রেটরে ভেক্টর লোগো ডিজাইন করলে তা বড় করলেও কোনো সমস্যা হয় না এবং নিজের মনের মতো বিভিন্ন শেপ তৈরি করে স্বতন্ত্র লোগো তৈরি করা যায়।

লোগো তৈরির আগে্চেআপনাকে কিছু বিষয় চিন্তা করা উচিত।

১. কেন ধরনের ব্যবাসার জন কি লোগো তৈরি করবেন।

২. কোন ধরনের শেপ ব্যবহার করলে লোগোটি অর্থবহ হবে

৩. কী রং ব্যাবহার করলে ভাল ফুটবে

৪. টেক্সটের ফন্ট স্টাই কেমন হলে ভাল হবে।

অ্যাডোবি ইলাস্ট্রেটরে দিয়ে লোগো তৈরি
অ্যাডোবি ইলাস্ট্রেটরে লোগো তৈরি করতে অ্যাডোবি ইলাস্ট্রেটর খুলে ফাইল মেনু থেকে নিউয়ে ক্লিক করে নতুন একটি পেজ ওপেন করুন তার পর ডিজাই তৈরি করুন। বাম পাশে থাকা বিভিন্ন টুল অপশনের সঙ্গে পরিচিত হোন এবং সেগুল কাজ সম্পরকে জানানু। উচ্চতা ও প্রস্থ নির্ধারণ করে আয়তাকার, বর্গাকার, বৃত্তাকার বা পছন্দমতো বিভিন্ন শেপ অথবা ভিন্ন আকৃতি শেপ তৈরি করুন। বিভিন্ন আকৃতি কেটে বা জোড়া লাগিয়ে নিজের পছন্দ ও প্রয়োজনমতো ডিজাইন তৈরি করুন। একাধিক আকৃতির অ্যালাইনমেন্ট ঠিক করার জন্য উইন্ডো মেনু থেকে অ্যালাইন অপশনটি নির্বাচন করলে একটি বক্স আসবে। সেখান থেকে প্রয়োজনমতো আকৃতি অ্যালাইন করে নিন।

অনুরূপভাবে, ওপরে-নিচে থাকা একাধিক আকৃতির বিভিন্ন অংশ কেটে অথবা জোড়া লাগাতে বা আলাদা করতে উইন্ডো মেনু থেকে পাথফাইন্ডার অপশনটি নির্বাচন করলে দেখবেন একটি ডায়ালগ বক্স আসবে। সেখান থেকে প্রয়োজনমতো শেপগুলো জোড়া লাগিয়ে বা আলাদা করে নিতে হবে। প্রয়োজনমতো বিভিন্ন শেপ গুরুপ অথবা আনগুপ করে নিতে হবে। শেপের ফিল কালার ব্যবহার করে অথবা স্ট্রোক ব্যবহার করে কৃয়েটিভ ডিজাইন করা যায়। গ্রেডিয়েন্টও ব্যবহার করতে পারেন।

চাইলে logodee.com, logodear.com-সহ অন্যান্য ওয়েবসাইট থেকে ফ্রি ভেক্টর ডাউনলোড করা যায়। টাইপ টুল ব্যবহার করে প্রয়োজনীয় টেক্সট লিখে পছন্দমতো ফন্ট ও রং নির্বাচন করে নিন। কাস্টমাইজ করতে অন্য টুলগুলো ব্যবহার করতে পারেন। যখন কাজ শেষে ফাইল মেনুতে গিয়ে সেভ করে নিতে হবে।

Back To Top